দোতলায় ল্যান্ডিং, মুখোমুখি ফ্ল্যাট, কথা হবে তো?


দেখলাম অস্থির সময়ের স্বস্তির গল্প সিরিজের নাটক “কথা হবে তো?” চমৎকার একটি নাটক। গল্পটি খুবই চেনা এবং সিম্পল। কিন্তু পরিচালকের নিপুণতায় সেটিই হয়ে উঠেছে হাজার নাটকের ভীড়ে একরাশ স্নিগ্ধতার পরশ বুলিয়ে দেওয়া ব্যতিক্রমধর্মী সুন্দর একটি নাটক।

কাহিনী বলব না, শুধু বলি মুখোমুখি দুটো ফ্ল্যাট, পাশাপাশি বসবাস, দেখা হয়, খবর শোনা হয়, কিন্তু কথা বলা হয় না। বিদায়ের সময় দোতলার ল্যান্ডিংয়ে দাঁড়িয়ে টুকটাক ভাঙ্গাভাঙ্গা কথা, এরপরই এতোদিনের ভুলের অবসান … শেষ দৃশ্যের কথপোকথের দৃশ্যটা দারুণ ছিল। কিছুটা আদনান আল রাজীবের সীলন টির বিজ্ঞাপনগুলোর কথা মনে করিয়ে দিচ্ছিল।

আয়নাবাজি চলচ্চিত্রে সাফল্যের পর অমিতাভ রেজা এবং সৈয়দ গাওসুল আলম শাওম গত রোযার ঈদে নির্মাণ করেছিলেন আয়নাবাজি অরিজিনাল সিরিজ। নির্মাণের দিক থেকে নাটকগুলো অসাধারণ হলেও দর্শকদের মধ্যে খুব বেশি সাড়া জাগাতে পারেনি। সম্ভবত দর্শকরা আয়নাবাজি চলচ্চিত্রের মতো কিছু আশা করেছিল বলে এক্সপেকটেশন হাই ছিল, সেজন্যই।

কিন্তু কুরবানীর ঈদে এই জুটির অস্থির সময়ের স্বস্তির গল্পের বেশ কয়েকটি নাটক দর্শকদের প্রশংসা লাভ করেছে। বিশেষ করে বুকের ভেতর কিছু পাথর থাকা ভালো এবং এই নাটকটি। কবি আহসান হাবীবের “দোতলায় ল্যান্ডিং” কবিতা অবলম্বনে নাটকটি রচনা করেছেন সৈয়দ গাওসুল আযম শাওন, চিত্রনাট্য লিখেছেন মনিরুল ইসলাম রুবেল এবং পরিচালনা করেছেন সৈয়দ আহমেদ শওকী। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন অমিতাভ রেজা এবং মেজবাউর রহমান সুমন। নাটকটিকে অভিনয় করেছেন মনোজ কুমার প্রমাণিক এবং মাসুমা রহমান নাবিলা।

শাওকীর কোনো কাজ আগে দেখিনি। কিন্তু এই নাটকটা আসলেই বেশ ভালো হয়েছে। তবে কতটা তার নিজের গুণে, আর কতটা অমিতাভ রেজা-মেজবাউর রহমান সুমনদের মতো প্রতিভাবান নির্মাতাদের তত্ত্বাবধানের গুণে, সেটা বুঝতে হলে তার আরো কয়েকটা নাটক দেখতে হবে। মনোজ কুমার এবং নাবিলা – দুজনেরই অভিনয় অসাধারণ হয়েছে। নিঃসন্দেহে এ বছরের সেরা নাটকগুলোর একটা ছিল এটা। ব্যক্তিগত রেটিং ১০-এ ৮।

যেই কবিতা অলম্বনে নাটকটা তৈরি, সেটা নিচে তুলে দিলাম:

দোতলায় ল্যান্ডিং

মুখোমুখি ফ্ল্যাট একজন সিঁড়িতে, একজন দরজায়

: আপনার যাচ্ছেন বুঝি ?
: চলে যাচ্ছি, মালপত্র উঠে গেছে সব।
: বছর দুয়েক হল, তাই নয় ?
: তারো বেশি। আপনার ডাক নাম শানু, ভালো নাম ?
: শাহানা, আপনার ?
: মাবু।
: জানি।
: মাহবুব হোসেন। আপনি খুব ভালো সেলাই জানেন।
: কে বলেছে। আপনার তো অনার্স ফাইন্যাল, তাই নয় ?
: এবার ফাইন্যাল।
: ফিজিক্স-এ অনার্স।
: কী আশ্চর্য ! আপনি কেন ছাড়লেন হঠাৎ ?
: মা চান না। মানে ছেলেদের সঙ্গে বসে …
: সে যাক গে, পা সেরেছে ?
: কী করে জানলেন ?
: এই আর কি ! সেরে গেছে ?
: ও কিছু না, প্যাসেজটা পিছলে ছিল মানে …
: সত্যি নয়। উঁচু থেকে পড়ে গিয়ে …
: ধ্যাৎ। খাবার টেবিলে রোজ মাকে অত জ্বালানো কি ভালো।
: মা বলেছে ?
: শুনতে পাই। বছর দুয়েক হল, তাই নয়?
: তারো বেশি। আপনার টবের গাছে ফুল এসেছে ?
: নেবেন ? না থাক। রিকসা এল, মা এলেন, যাই।
: যাই। আপনি সন্ধে বেলা ওভাবে কখনো পড়বেন না,
চোখ যাবে, যাই।
: হলুদ শার্টের মাঝখানে বোতাম নেই, লাগিয়ে নেবেন, যাই।
: যান, আপনার মা আসছেন। মা ডাকছেন, যাই।

নাটকটি সাধারণভাবে ডাউনলোড করার উপায় নেই। বায়োস্কোপ থেকে অনলাইনে স্ট্রীমিং করে দেখতে হবে। লিংক :

http://www.bioscopelive.com/en/watch?v=0buZl72q55M

তবে আমার পক্ষে ডাউনলোড করে দেখা সম্ভব নয় বলে ফেসবুকে এক গ্রুপে অনুরোধ করায় MK Jumman নাটকটি রেকর্ড করে আপলোড করে দিয়েছেন। গুগল ড্রাইভে সেটির ডাউনলোড লিংক প্রথম কমেন্টে শেয়ার করছি। উনি যতদিন রিমুভ না করবেন, ততদিন লিংকটি থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

সাথে বোনাস একটা লিংক দেই, শুধু যারা নাটকটি দেখেছেন, তাদের জন্য। আধুনিক যুগে এই নাটকের ডায়লগ কিরকম হতে পারে, সেটা নিয়ে e-আরকির ফিচার। দেখতে পারেন এখান থেকে

কী-ওয়ার্ডস: নাটক, অমিতাভ রেজা, বায়োস্কোপ, কথা হবে তো? নাটক ডাউনলোড, নাটক রিভিউ, kotha hobe to natok download link, অস্থির সময়ের স্বস্তির গল্প, bioscope natok download

One thought on “দোতলায় ল্যান্ডিং, মুখোমুখি ফ্ল্যাট, কথা হবে তো?”

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s