Category Archives: বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

বিভিন্ন ম্যাগাজিন থেকে আমার অনুবাদ করা বিজ্ঞান বিষয়ক জনপ্রিয় প্রবন্ধগুলোর অনুবাদ এবং কিছু সংগৃহীত প্রবন্ধ

প্রযুক্তির উৎকর্ষতা: দৃষ্টিনন্দন ঘূর্ণায়মান বাড়ি

ভাবতে পারেন, আপনি যে বাড়িটিতে বাস করছেন, সেটি সারা জীবন বৈচিত্র্যহীনভাবে এক দিকে মুখ করে থাকার পরিবর্তে প্রতিনিয়ত নিজ অক্ষের উপর ঘুরে চলছে? একই জানালা দিয়ে আপনি সকাল বেলা পূর্বদিকের সূর্যোদয় দেখছেন, দুপুর বেলা দখিনা হাওয়া খাচ্ছেন, আর সন্ধ্যাবেলা সেই জানালা দিয়েই পশ্চিমের সূর্যাস্ত উপভোগ করছেন? কাল্পনিক মনে হতে পারে, কিন্তু বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তির উৎকর্ষের এই যুগে কোনো কিছুই অসম্ভব নয়। সংখ্যায় অল্প হলেও বিশ্বের বেশ কিছু স্থানে সত্যি সত্যিই এমন কিছু বাড়ি আছে, যেগুলো নিজ অক্ষর উপর আবর্তন করতে সক্ষম!

বিশ্বের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ঘূর্ণায়মান ভবন হলো:

১। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান ডিয়েগোর মাউন্ট হেলিক্সের বৃত্তাকার দোতলা বাড়ি রোটেটিং হোম (Rotating Home), যা একটি সেন্ট্রাল কোরের চারপাশে সর্বনিম্ন ৩০ মিনিটে একবার এবং সর্বোচ্চ ২৪ ঘন্টায় একবার যত খুশি তত বার ঘুরতে পারে।।

২।  ১৯৩৫ সালে নির্মিত ইতালির ভিলা গিরাসোল (Villa Girasole), যা তিনটি বৃত্তাকার রেলপথে ১৫টি রোলার স্কেটের উপর দিয়ে সূর্যকে অনুসরণ করে প্রতি ৯ ঘণ্টা ২০ মিনিটে একবার আবর্তন করতে পারে।

৩। ব্রাজিলে অবস্থিত সম্পূর্ণ ১৫ তলা বিশিষ্ট কনক্রিট স্ট্রাকচারে তৈরি স্যুইট ভোলার্দ টাওয়ার (Suite Vollard Tower), যার ১১টি আবাসিক তলা পৃথকভাবে যেকোনো দিকে যত খুশি তত বার আবর্তন করতে পারে।

এই ভবনগুলো ছাড়াও আরো কয়েকটি ঘূর্ণায়মাণ ভবনের ছবি, ভিডিও এবং বিস্তারিত বিবরণ সহ মূল প্রবন্ধটি পড়তে পারেন Roar বাংলার এই লিংক থেকে

Advertisements

মোবাইল ফোন দিয়ে বাঘ শিকার!

কোন হাই রেঞ্জের শুটিং রাইফেল নয়, কোন ডার্ট গান নয়, কোন ট্রাঙ্কুইলাইজার নয়, এমন কি কোন তীর-ধনুকও নয়; সামান্য একটা মোবাইল ফোনের রিংটোনই পারে আপনাকে ভয়ঙ্কর কোন চিতাবাঘের আক্রমণ থেকে রক্ষা করতে। সম্প্রতি ভারতের গুজরাটে এমনই নিদর্শন দেখা গেছে।

Continue reading মোবাইল ফোন দিয়ে বাঘ শিকার!

বৃহদাকার ডাইনোসর শুধুমাত্র স্বল্প তীক্ষ্ণতা বিশিষ্ট শব্দই শুনতে পেত!

বিজ্ঞানীদের এক গবেষণা থেকে জানা গেছে, বৃহদাকার ডাইনোসরেরা শুধুমাত্র স্বল্প তীক্ষ্ণতা বিশিষ্ট শব্দই শুনতে পারত। চিলের চিত্কার বা বাশির আওয়াজের মতো তীক্ষ্ণ শব্দের চেয়ে ভারী কোন জিনিষের পতনের মতো প্রচন্ড শব্দ শোনার জন্যই ডাইনোসরের শ্রবণেন্দ্রিয় বেশি উপযোগী ছিল। সে কারণে Brachiosaurus এবং Allosaurus জাতীয় ডাইনোসরেরা অনেক দূর থেকে অন্যান্য ডাইনোসরের পদধ্বনি শুনতে পারলেও তাদের হাতে পড়া অন্যান্য প্রাণীর আর্ত চিত্কার মোটেই শুনতে পারত না বা পারলেও তা হতো অতি নগন্য।

Continue reading বৃহদাকার ডাইনোসর শুধুমাত্র স্বল্প তীক্ষ্ণতা বিশিষ্ট শব্দই শুনতে পেত!

দারুণ একটা সংখ্যা 142857!

গুগলে বিচরণ করতে করতে অদ্ভুত একটা সংখ্যার খোঁজ পেলাম। দেখে তো আমার আক্কেল গুড়ুম!

142,857 x 1 = 142,857
142,857 x 2 = 285,714
142,857 x 3 = 428,571
142,857 x 4 = 571,428
142,857 x 5 = 714,285
142,857 x 6 = 857,142

Continue reading দারুণ একটা সংখ্যা 142857!

মোবাইল ফোন দিয়ে ডিম সিদ্ধ!

গুজবটা শুরু হয়েছিল আরো বছর খানেক আগে৷ অনেকেই হয়তো সেই সময় mobile phone fries your brain শিরোণামে একটা ই-মেইল পেয়ে থাকবেন৷ এই ই-মেইলের মূল বিষয় ছিল মোবাইল ফোন ব্যবহারের ভয়াবহতা৷ ই-মেইলটাতে দাবি করা হয়েছিল যে, দুটো মোবাইল ফোনকে মুখোমুখি করে তাদের মাঝে একটা ডিম যদি এমনভাবে রাখা হয়, যেন ফোনদুটো ডিমটাকে দুইদিক থেকে স্পর্শ করে থাকে  Continue reading মোবাইল ফোন দিয়ে ডিম সিদ্ধ!

ইন্দ্রিয়গুলো যখন প্রতারণা করে

বাস্তব জীবনে আমরা যা কিছু দেখি বা শুনি বলে আমাদের কাছে মনে হয়, তার সব কিছুই যে সঠিক সেটার কোন নিশ্চয়তা নেই। অধিকাংশ সময়ই আমাদের ইন্দ্রিয়গুলো আমাদের সাথে প্রতারণা করে। যেমন ধরা যাক টেলিভিশন দেখার কথা। আপনি যদি একটু ভালোভাবে লক্ষ করেন তাহলে দেখতে পাবেন যে, আমরা যখন টিভিতে ফুটবল বা অন্য কোন খেলা দেখার সময় ভাষ্যকারের ধারাবর্ষ শুনি, তখন যদি ভাষ্যকারকে টিভির পর্দায় দেখায় তাহলে আমাদের কাছে মনে হয় যে কথাগুলো ভাষ্যকারের মুখ থেকেই আসছে।  Continue reading ইন্দ্রিয়গুলো যখন প্রতারণা করে