Tag Archives: আইএস

একটি দায়েশীয় কৌতুক

একটি দায়েশ (আইএস) বিষয়ক কৌতুক। লিবিয়ান একটা গ্রুপে পেলাম।

আইএস তিনজন ব্যক্তিকে আটক করেছে। একজন মিসরী, একজন সুদানী এবং একজন লিবিয়ান।

প্রথমেই তারা মিসরীকে তার নাম জিজ্ঞেস করল। মিসরী উত্তর দিল, ইয়াসিন। আইএস এবার তাকে সূরা ইয়াসিন মুখস্ত বলতে বলল। বেচারা বলতে পারল না। সাথে সাথে আইএস তাকে জবাই করে হত্যা করল।

এরপর তারা সুদানীকে তার নাম জিজ্ঞেস করল। সুদানীর নাম ইউসুফ। যথারীতি তাকেও সূরা ইউসুফ বলতে বলা হল। না পারায় তাকেও জবাই করে হত্যা করা হল।

এবার তারা ফিরল লিবিয়ানের দিকে। কিছু জিজ্ঞেস করার আগেই লিবিয়ানটা ঝটপট বলে উঠল, ভাই আমার নাম কাওসার 🙂

প্রথম লেখা: ৪ জানুয়ারি, ২০১৫, ফেসবুকে

লিবিয়ার মাদখালি সালাফিদের প্রকারভেদ

মাদখালি সালাফিরা সম্ভবত ওয়ার্স্ট কাইন্ড অফ ইসলামিস্টস। ব্যাখ্যার দরকার নাই, সৌদি আলেমদের দিকে তাকালেই ব্যাপারটা বোঝা যায়। এরা মনে করে, প্রেসিডেন্ট, তাদের ভাষায় ওয়ালি আল-আম্‌র, যতই অন্যায় করুক, তার বিরুদ্ধে আন্দোলন করা যাবে না, যদি না তার বিরুদ্ধে স্পষ্ট কুফরের প্রমাণ পাওয়া যায়। বিশ্বব্যাপী মুসলমান রাষ্ট্রগুলোর স্বৈরশাসকদের কাছে এরা যে ভীষণ প্রিয় হবে, তাতে আর আশ্চর্যের কী আছে?

বেনগাজীর মাদখালি সালাফিদের কথা বলি। সেখানে ডিফ্যক্টো ক্ষমতায় জেনারেল খলিফা হাফতার। এক সময়ের সিআইএ এজেন্ট, বর্তমানে অবশ্য রাশিয়াপন্থী। প্রচন্ড রকমের অ্যান্টি-ইসলামিস্ট। সেখানকার সবগুলো ইসলামিস্ট গ্রুপ হাফতারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে যাচ্ছে। একমাত্র ব্যতিক্রম মাদখালি সালাফিরা। তারা তাদের ‘ওয়ালি আল-আমর’ হাফতারের অধীনস্থ থেকে লিবিয়ার পূর্বাঞ্চল শাসণ করে যাচ্ছে।

Continue reading লিবিয়ার মাদখালি সালাফিদের প্রকারভেদ